বাংলা

টুইটার রিঅ্যাকশনঃ পরপর দুই ম্যাচ হেরে বিদায়ের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ

আট উইকেটে ম্যাচ জিতল প্রোটিয়ারা

South Africa vs West Indies
South Africa vs West Indies. (Photo by AAMIR QURESHI/AFP via Getty Images)

নিজেদের প্রথম ম্যাচে হোঁচট খেয়েছিল দুই দলই। দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে এই ম্যাচ ছিল তাই জয়ের ধারায় ফেরার সুযোগ। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকাই।

দুবাইয়ে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে দারুণ জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৮ উইকেটে হারিয়ে আসরে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিয়েছে দলটি।

কুইন্টন ডি কককে ছাড়া খেলতে নেমে ক্যারিবীয়দের ভালোভাবেই চেপে ধরে প্রোটিয়ারা। লেন্ডল সিমন্সনের বিরক্তিকর ব্যাটিং ম্লান হয়ে ছিল এভিন লুইসের ঝড়ের সামনে।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৬ রান করেন লুইস ৩৫ বলের সম্মুখীন হয়ে। ৩টি চার ও ৬টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন তিনি। ওপেনিংয়ে নেমে ৩৫ বলে ১৬ রানের একটি অতীব মন্থর ইনিংস খেলেন লেন্ডল সিমন্স। অন্যান্যদের মধ্যে ২০ বলে ২৬ রান করেন অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। নিকোলাস পুরান ৭ বলে ১২ ও ক্রিস গেইল ১২ বলে ১২ রান করেন।

নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ক্যারিবীয়দের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৪৩ রান। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস তিনটি ও কেশব মহারাজ দুটি উইকেট শিকার করেন।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই অধিনায়ক টেম্বা বাভুমাকে হারিয়ে ফেলে দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে অধিনায়ককে হারালেও দক্ষিণ আফ্রিকা পথ হারায়নি রিজা হ্যানড্রিক্স ও রাসি ভন ডার ডুসেনের ৫৭ রানের পার্টনারশিপে।

৩০ বলে ৩৯ রান করে রিজা বিদায় নিলে হাল ধরেন অ্যাইডেন মারক্রাম। ভন ডার ডুসেনের সাবধানী ব্যাটিংয়ের ঠিক বিপরীত চিত্র ছিল তার ব্যাটে। মাঠ ছাড়েন দলের জয় নিশ্চিত করেই। ১৮.২ ওভার ব্যাট করে ২ উইকেট হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাভুমার দল।

৫১ বলে ৪৩ রান করে অপরাজিত থাকেন ভন ডার ডুসেন। মারক্রাম মাত্র ২৬ বল খেলে ৫১ রান করে ছিলেন দলের সর্বোচ্চ স্কোরার, হাঁকিয়েছেন ২টি চার ও ৪টি ছক্কা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই দুর্দশা দেখে সোশ্যাল মিডিয়া চুপ করে থাকেনি। টুইটারে আলোড়ন পড়ে যায় লেন্ডল সিমন্সের অভাবনীয় মন্থর ইনিংসকে সমালোচনা করে। আলোচনায় উঠে আসে মার্করামের ব্যাটিংও। রইল তারই কিছু নজির।