বাংলা

“এখন দলটাকে দেখে খুবই শক্তিশালী লাগছে”, পাকিস্তান স্কোয়াডে পরিবর্তন নিয়ে মুখ খুললেন শোয়েব আখতার

পরিবর্তনগুলিতে দলে ভারসাম্য এসেছে, মত শোয়েবের

Shoaib Akhtar
Shoaib Akhtar. (Photo by FAROOQ NAEEM/AFP via Getty Images)

১৭ই অক্টোবর থেকে শুরু হতে চলা টি-২০ বিশ্বকাপের জন্য পূর্বে ঘোষিত ১৫ জনের স্কোয়াডে শুক্রবার পরিবর্তন করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। নির্বাচকরা অভিজ্ঞ সরফারাজ আহমেদ ও ফাখার জামানকে নেওয়ার পাশাপাশি দলে স্থান দিয়েছেন তরুণ হায়দার আলিকে। এই তিনজনের অন্তর্ভুক্তি যাঁদের পরিবর্তে তাঁরা হলেন আজম খান, মহম্মদ হাসনাইন ও খুশদিল শাহ।

প্রাথমিকভাবে পিসিবি দল ঘোষণা করে ৪ঠা সেপ্টেম্বর। সেখানে শোয়েব মালিক, ফাখার জামান, সরফারাজের মতো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নাম অনুপস্থিত ছিল। প্রাক্তন ক্রিকেটাররা সেই দল দেখে একেবারেই সন্তুষ্ট ছিলেন না এবং অভিজ্ঞদের বাদ রেখে অনভিজ্ঞদের সুযোগ দেওয়ার জন্য নির্বাচকদের সমালোচনা করেন। কিন্তু এখন ফাখার ও সরফারাজের অন্তর্ভুক্তিতে স্পষ্ট যে টিম ম্যানেজমেন্ট তাঁদের অভিজ্ঞতাকে গুরুত্ব দিচ্ছেন।

বর্তমানে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বিশেষজ্ঞ হিসেবে দেখা যাওয়া প্রাক্তন পাক পেসার শোয়েব আখতার দলের এই পরিবর্তনে খুশি। তাঁর মনে হয়েছে এই দল ভালো কিছু করে দেখানোর ক্ষমতা রাখে। শোয়েব তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। সেখানে বলেছেন, “শোয়েব মালিককে না নিয়ে সরফারাজকে নেওয়া হল। পরিবর্তনটা ঠিকঠাক, কিন্তু আদর্শ নয়। মিডল অর্ডারে হায়দার আলিকে গুরুত্ব দেওয়া হল। আজম খানের জায়গায় সরফারাজ এল। একজন কিপার বেরিয়ে তার জায়গায় আরেকজন কিপার। সরফারাজ আসায় মিডল অর্ডারে ভারসাম্যও বাড়ল।”

দলের ভারসাম্য দেখে এখন ভালো লাগছে

রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেসের মনে হয়েছে বিশ্বকাপে শোয়েব মালিকের থাকা উচিত ছিল। তবে পরিবর্তিত দলটি নিয়ে তিনি আশাবাদী এবং বাবর আজমের নেতৃত্বাধীনে পাকিস্তান ভালো কিছুই করবে বলে আশা রাখছেন।

শেষে তিনি বলেন, “স্কোয়াডে বড় পরিবর্তন বলতে আজম খানের বাদ যাওয়া। দলের ভারসাম্য দেখে এখন ভালো লাগছে, তবে মালিক থাকলে আরো ভালো হত। এখন দলটাকে দেখে খুবই শক্তিশালী লাগছে এবং এই বিশ্বকাপে পাকিস্তান নিজেদের ছাপ রাখতে পারবে বলেই আশা করছি।”

এর আগে শোয়েব জানিয়েছিলেন তিনি মূল স্কোয়াডে চারটি পরিবর্তন দেখতে চান। মালিকের পাশাপাশি তিনি চেয়েছিলেন শার্জিল খানকেও যাতে দলে ঢোকানো হয়।

২০২১ টি-২০ বিশ্বকাপের জন্য পাকিস্তানের পরিবর্তিত স্কোয়াড – বাবর আজম (অধিনায়ক), শাদাব খান (সহ-অধিনায়ক), আসিফ আলি, ফাখার জামান, হায়দার আলি, হারিস রউফ, হাসান আলি, ইমাদ ওয়াসিম, মহম্মদ হাফিজ, মহম্মদ নাওয়াজ, মহম্মদ রিজওয়ান, মহম্মদ ওয়াসিম (জুনিয়র), সরফারাজ আহমেদ, শাহীন শাহ আফ্রিদি, সোহেব মাকসুদ।

রিজার্ভ – খুশদিল শাহ, শাহনাওয়াজ দাহানি, উসমান কাদির।