“হেডিংলিতে প্রথম ঘন্টাটি গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে” – ইংল্যান্ডকে তৃতীয় টেস্টে জেতার ব্যাপারে পরামর্শ দিলেন সচিন তেন্ডুলকার

Sachin Tendulkar
Sachin Tendulkar. (Photo Source: Gettyimages)

এই মুহূর্তে অ্যাশেজ সিরিজ ২০২৩-এ ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে আছে বেন স্টোকসের নেতৃত্বাধীন ইংল্যান্ড। ঘরের মাঠে প্ৰথম দুটি টেস্টে পরাজিত হওয়ায় তাদের অনেক সমালোচিত হতে হয়েছিল। প্যাট কামিন্সের নেতৃত্বাধীন অস্ট্রেলিয়া তৃতীয় টেস্ট ম্যাচটিতে ইংল্যান্ডের সামনে খুব একটা বড় রানের লক্ষ্য রাখতে পারেনি। প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকার ইংল্যান্ডকে অ্যাশেজ সিরিজের তৃতীয় টেস্ট ম্যাচটি জেতার ব্যাপারে পরামর্শ দিয়েছেন।

হেডিংলি টেস্টের প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া ১০ উইকেটে ২৬৩ রান করতে সক্ষম হয়েছিল। মিচেল মার্শ এই ইনিংসে শতরান করেছিলেন। তিনি ১৭টি চার এবং ৪টি ছয় সহ ১১৮ বলে ১১৮ রান করেছিলেন। ট্র্যাভিস হেড খুব ভালোভাবে তাকে সঙ্গ দিয়েছিলেন। তিনি ৫টি চার সহ ৭৪ বলে ৩৯ রান করেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডারের ব্যাটাররা খুব বেশি রান করতে পারেননি। মার্ক উড ৩৪ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন।

ইংল্যান্ডও প্ৰথম ইনিংসে স্কোরবোর্ডে খুব বেশি রান তুলতে পারেনি। তারা ২৩৭ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। অধিনায়ক বেন স্টোকস ৬টি চার এবং ৫টি ছয় সহ ১০৮ বলে ৮০ রান করেছিলেন। প্যাট কামিন্স ৯১ রান দিয়ে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন।

সচিন তেন্ডুলকার নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে লিখেছেন, “হেডিংলিতে আগামীকাল প্রথম ঘন্টাটি গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। আমার মনে হয় যে উইকেটটি বেশ ভালোই এবং ইংল্যান্ড যদি ঠান্ডা মাথায় ব্যাট করে এবং তাদের দৃষ্টিভঙ্গি যদি ইতিবাচক হয় তবে তারা সেখানে পৌঁছে যাবে। তাদের ইতিবাচক পদ্ধতির সাথে শট নির্বাচনের ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা প্রয়োজন এবং তাহলেই তারা লক্ষ্য তাড়া করে ফেলবে।”

জয়ের জন্য ২৫১ রান করতে হবে ইংল্যান্ডকে

অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৭০ রানের মধ্যেই ৮ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল। তারা শেষ দুটি উইকেটে ৫৪ রান করে পরিস্থিতি সামাল দিয়েছিল। ট্র্যাভিস হেড ১১২ বলে ৭৭ রানের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন। উসমান খাওয়াজা ৯৬ বলে ৪৩ রান করেন।

ইংল্যান্ড ২৫১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইতিমধ্যেই ২টি উইকেট হারিয়ে ফেলেছে। বেন ডাকেট ৩টি চার সহ ৩১ বলে ২৩ রান করে আউট হন। মইন আলিকে ওয়ান ডাউনে ব্যাট করতে পাঠিয়েছিল ইংল্যান্ড। তিনি ১৫ বলে ৫ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। এই দুটিই উইকেটই নিয়েছেন অভিজ্ঞ পেসার মিচেল স্টার্ক। ইংল্যান্ডের রান ৭০ পার করে গেছে। শেষমেশ এই ম্যাচে কোন দল জয় পায় সেটাই এখন দেখার বিষয়।