বাংলা

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৫ বছর পূর্ণ করে আবেগতাড়িত রোহিত শর্মা

Rohit Sharma
Rohit Sharma. (Photo by AAMIR QURESHI/AFP via Getty Images)

আগামী ১ জুলাই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট ম্যাচে নামছে ভারত। নেতৃত্বের দায়িত্বে রোহিত শর্মা। সেই ম্যাচে নামার এক সপ্তাহ আগেই কেরিয়ারের অন্যতম মাইলস্টোন গড়েছেন দ্য হিটম্যান। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৫ বছর পূরেণ করলেন রোহিত শর্মা। এমন অনুভূতি খুব কম ক্রিকেটারই পায়। রোহিত শর্মা তাদের মধ্যেই একজন। ২০০৭ সালের এই দিনেই ভারতীয় দলের জার্সিতে প্রথমবার মাটে নেমেেছিলেন তরুণ রোহিত শর্মা। এরপর নানান চড়াই উতরাইয়ের মধ্যে দিয়েই টানা ১৫টা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মঞ্চে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন রোহিত শর্মা।

ভারতীয় দলের অধিনায়কের দায়িত্ব এখন রোহিত শর্মার কাঁধে। সেই হিটম্যান ১৫ বছর পূর্ণ করার পর খানিকটা হলেও যেন আবেগতাড়িত। আবেগতাড়িত হওয়াটাই বোধহয় স্বাভাবিক। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে নামার  লেস্টারশায়ারের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচে নামছে ভারত। সূচীর থেকে একদিন এগিয়ে গিয়েছে প্রস্তুতি ম্যাচ। সেই দিনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৫ বছর পূর্ণ করলেন রোহিত শর্মা। সোশ্যাল সাইটে আবেগতাড়িত বার্তাও দিলেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৫ বছর পূর্ণ করার অনুভূতিটা তাঁর কাছে অন্যতম তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় রোহিত শর্মা লিখেছেন, “আজ দেশের জার্সিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৫ বছর পূর্ণ করব আমি। একটা অসাধারণ অভিযান এটা।  আমার সারাটা জীবনে এই মুহূর্তটা সবসময়ই উপভোগ্য হয়ে থাকবে”।

একদিনের ক্রিকেটে তিনটি দ্বিশতরানের মালিক রোহিত শর্মা

তিনি আরও লিখেছেন, “আমার এই যাত্রায় যাদেরকে পাশে পেয়েছি সকলকে ধন্যবাদ জানাই। বিশেষকরে যাদের সাহায্যে আমি এমন একজন ক্রিকেটার হয়ে উঠেছি, তাদের বিশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি। সেই সমস্ত ক্রিকেট ভক্ত, সমর্থক এবং সমালোচকদের জন্যই আজ আমরা সমস্ত বাধা অতিক্রম করে এগিয়ে যেতে পেরেছি”।

২০০৭ সালে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২৩ জুন একটি একদিনের ম্যাচে অভিষেক হয়েছিল রোহিত শর্মার। যদিও সেই ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সুযোগ মেলেনি রোহিতের। এরপর টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুযোগ পেলেও, চোট-আঘাতের এবং ফর্মের বিচারে খেলতে পারেননি তিনি। একই কারণে ২০১১ সালের বিশ্বকাপেও ভারতীয় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন রোহিত শর্মা।  ২০১৩ সাল পর্যন্ত চলেছিল এই ঘটনা। এরপর থেকেই যেন রোহিত শর্মার জীবনে শুরু হয়েছিল নতুন এক অধ্যায়।

২০১৯ সালের একদিনের বিশ্বকাপে রোহিত শর্মার রয়েছে পাঁচটি শতরান

২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে রোহিত শর্মাকে ওপেনার হিসাবে খেলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। এরপর আর তাঁকে পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। রোহিত শর্মা ধীরে ধীরে হয়ে উঠেছিলেন দ্য হিটম্যান। সেই বছরই একদিনের ক্রিকেটে প্রথমবার দ্বিশতরান করেন তিনি। এরপরই শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে রোহিত শর্মার সেই ২৬৪ রানের বিধ্বংসী ইনিংস। তিন বছর পর ফের দ্বিশতরান করে একদিনের ক্রিকেটে তিনটি দ্বিশতরান করার ইতিহাস তৈরি করেছিলেন রোহিত শর্মা।

শুধু তাই নয় নিদাহাস ট্রফিতে বিরাট কোহলির অনুপস্থিতিতে নেতৃত্বের দায়িত্ব সামলেছিলেন রোহিত শর্মা। তাঁর হাত ধরেই সেই প্রতিযোগিতা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত। এরপর ২০১৯ সালে বিশ্বকাপের মঞ্চে রোহিত শর্মার ভয়ঙ্কর পারফরম্যান্স। একের পর এক ম্যাচে তাঁর দক্ষ ব্যাটে ভর করেই এগিয়ে গিয়েছিল টিম ইন্ডিয়া। বিশ্বকাপের মঞ্চে পাঁচটি শতরান রয়েছেন রোহিত শর্মা।

২০২১ সালে এই রোহিত শর্মার কাঁধেই প্রথমবার ভারতীয় দলের টি টোয়েন্টির নেতৃত্বের দায়িত্ব ওঠে। এরপরই একে একে একদিন এবং টেস্ট দলের নেতৃত্বও এখন রোহিত শর্মার কাঁধে। টেস্ট অধিনায়ক হওয়ার পর প্রথমবার ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তাদের ঘরের মাটিতে নামছেন রোহিত শর্মা। সাফল্যের সঙ্গে এগিয়ে যাওয়াই এখন তাঁর একমাত্র লক্ষ্য।