চোটের কারণে ওডিআই বিশ্বকাপ ২০২৩ থেকে ছিটকে গেলেন অ্যাশটন আগার

Ashton Agar
Ashton Agar. (Photo by Daniel Kalisz/Getty Images)

ওডিআই বিশ্বকাপ ২০২৩-এর আগে একটি অনেক বড় ধাক্কা খেল অস্ট্রেলিয়া। অভিজ্ঞ স্পিন-বোলিং অলরাউন্ডার অ্যাশটন আগার কাফ মাসেলের চোটের কারণে আসন্ন টুর্নামেন্টটিতে খেলতে পারবেন না।

৫ই অক্টোবর থেকে ওডিআই ক্রিকেটের সবথেকে বড় টুর্নামেন্টটি শুরু হতে চলেছে। বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী দেশগুলি ইতিমধ্যেই তাদের দল ঘোষণা করে দিয়েছে। তবে অ্যাশটন আগারের চোটের কারণে সমস্যার মধ্যে পড়ে গিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আগারের কাছে অনেক অভিজ্ঞতা রয়েছে যা তিনি এইবারের ওডিআই বিশ্বকাপে কাজে লাগাতে পারতেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত এই টুর্নামেন্টে অস্ট্রেলিয়া তার পরিষেবা পাবে না।

ভারতের মাটিতে খেলার জন্য দলে ভালো স্পিনার থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অ্যাশটন আগার একজন ভালো স্পিন বোলার হওয়ার পাশাপাশি ব্যাটও করতে পারেন। সুতরাং, তার দলে না থাকাটা অস্ট্রেলিয়ার জন্য খুবই হতাশাজনক। এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের বদলি হিসেবে অস্ট্রেলিয়া কাকে দলে নেয় সেটাই এখন দেখার বিষয়।

ভারতের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের ওডিআই সিরিজে ২-১ ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়া

প্ৰথম একদিনের ম্যাচটিতে ভারত ৫ উইকেটে জয় পেয়েছিল। সেই ম্যাচটিতে রুতুরাজ গায়কওয়াড়, শুভমন গিল, সূর্যকুমার যাদব এবং কেএল রাহুল অর্ধশতরান করেছিলেন। অন্যদিকে, মহম্মদ শামি এই ম্যাচে ৫টি উইকেট নিয়েছিলেন। অস্ট্রেলিয়া প্ৰথমে ব্যাটিং করতে নেমে ৫০ ওভারে ২৭৬ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। ডেভিড ওয়ার্নার ৫৩ বলে ৫২ রানের একটি সুন্দর ইনিংস খেলেছিলেন। ভারত ৪৮.৪ ওভারে ৫ উইকেটে ২৮১ রান করার মাধ্যমে ম্যাচটি জিতে নিয়েছিল।

দ্বিতীয় ম্যাচটিতে ভারত অসাধারণ অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স দেখিয়েছিল। শ্রেয়াস আইয়ার এবং শুভমন গিল শতরান করতে সক্ষম হয়েছিলেন। সূর্যকুমার যাদব ৩৭ বলে অপরাজিত ৭২ রানের একটি অনবদ্য ইনিংস খেলেছিলেন। কেএল রাহুলের ব্যাট থেকেও একটি ভালো ইনিংস এসেছিল। ভারত ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ৩৯৯ রান করেছিল। এই ম্যাচে বৃষ্টি বিঘ্ন ঘটিয়েছিল। তাই অস্ট্রেলিয়াকে ৩৩ ওভারে ৩১৭ রান করতে হত। কিন্তু তারা ২১৭ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল।

তৃতীয় একদিনের ম্যাচটিতে ভারতকে ৬৬ রানে পরাজিত করেছিল অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়া ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ৩৫২ রান করেছিল। তাদের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছিলেন মিচেল মার্শ। তিনি ৮৪ বলে ৯৬ রানের একটি অসাধারণ ইনিংস খেলেছিলেন। ভারত রান তাড়া করতে নেমে ৪৯.৪ ওভারে ২৮৬ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। রোহিত শর্মার ব্যাট থেকে ৫৭ বলে ৮১ রানের একটি ঝোড়ো ইনিংস এসেছিল, তবে তা ভারতের জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না।