বাংলা

রাহুল, মায়াঙ্ক, গেইলদের মতো কোন তারকারই পাঞ্জাব কিংসের রিটেনশন তালিকায় থাকার সম্ভাবনা নেই

অখ্যাত আর্শদীপ ও বিষ্ণোইকে সম্ভবত রাখতে চলেছে

Punjab Kings
Punjab Kings. (Photo Source: IPL/BCCI)

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ২০২২ মেগা নিলামের আগে পাঞ্জাব কিংস তাদের কোনো খেলোয়াড়কে ধরে রাখবে না বলে শোনা যাচ্ছে। উল্লেখ্য, বিদ্যমান আটটি দলকে ৩০শে নভেম্বরের মধ্যে তাদের ধরে রাখার তালিকা জমা দিতে বলা হয়েছে। সময়সীমা শেষের দিকে আসার সাথে সাথে সমস্ত দলই ব্যস্ত হয়ে পড়বে চিন্তাভাবনা করতে। যদিও, মনে হচ্ছে পাঞ্জাব কিংসের মালিকপক্ষ তাদের দলকে সম্পূর্ণরূপে পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাই পাঞ্জাব কিংসের রিটেনশন তালিকা শূণ্য থাকারই সম্ভাবনা।

যেহেতু তারা কোনো ক্রিকেটারকে রিটেইন করবে না তাই তারা ৯০ কোটির সম্পূর্ণ পার্স নিয়ে বিডিং ইভেন্টে প্রবেশ করবে। এটি আগে রিপোর্ট করা হয়েছিল যে গত দুই মরসুমে দলের অধিনায়ক কেএল রাহুল পাঞ্জাব কিংসের সাথে তাঁর সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যেতে চান না। যদিও প্রীতি জিন্টার সহ-মালিকানাধীন দল অবশ্যই রাহুলকে ধরে রাখতে আগ্রহী ছিল। তবে তারা তাদের অন্য কোনও খেলোয়াড়কে রিটেইন করতে আগ্রহী নয় বলে জানা গেছে।    

এটি উল্লেখ্য যে রাহুল ২০১৮ সালে ফ্র্যাঞ্চাইজিতে যোগদানের পর থেকে পাঞ্জাবের পক্ষে একটি দুর্দান্ত রান-স্কোরার হয়ে উঠেছেন। একটি মরসুম বাদে তিনি বাকি তিনটি মরসুমেই তিনি ৬০০ রানের গণ্ডি অতিক্রম করেছিলেন। তিনি ২০২০ সালে অরেঞ্জ ক্যাপও জিতেছিলেন। তবে, ২৯ বছর বয়সী ব্যাটার দল পরিবর্তন করতে ইচ্ছুক, তাই পাঞ্জাবের ফ্র্যাঞ্চাইজি থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

অন্য একটি রিপোর্ট অনুসারে রবি বিষ্ণোই ও আর্শদীপ সিং থাকতে পারেন পাঞ্জাব কিংসের রিটেনশন 

প্রধান প্রতিবেদনটি দ্য টেলিগ্রাফ দ্বারা পরিচালিত হয়েছিল। এটাও জানা গেছে যে পাঞ্জাব কিংস রবি বিষ্ণোই এবং আর্শদীপ সিং-এর মতো আনক্যাপড খেলোয়াড়দের সম্ভাব্য ধরে রাখার জন্য দেখছে কিন্তু এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। দুই খেলোয়াড়কে আনক্যাপ করায়, পাঞ্জাব কিংস কে তাদের একজনকে ধরে রাখতে মাত্র ৪ কোটি টাকা খরচ করতে হবে। সুতরাং, পাঞ্জাব-ভিত্তিক দলটি বিষ্ণোই বা আরশদীপের সাথে টিকে থাকতে পারে।  

এটি উল্লেখ্য যে দুটি নতুন দল – যথাক্রমে আহমেদাবাদ এবং লখনউ – রিটেইন না করা খেলোয়াড়দের তালিকা থেকে সর্বোচ্চ তিনজন খেলোয়াড় বাছাই করার সুযোগ পাবে। তাই, রাহুল ও কিংসের বিচ্ছেদ হলে, উভয় দলই তাঁকে দলে নিতে চাইবে। 

রাহুল ছাড়াও, শ্রেয়াস আইয়ার, শিখর ধাওয়ান, ডেভিড ওয়ার্নার, সূর্যকুমার যাদব, মায়াঙ্ক আগরওয়ালদের মতো কিছু বিশিষ্ট খেলোয়াড়দের তাদের বর্তমান দলগুলি ধরে রাখবে না বলে আশা করা হচ্ছে। অতএব, তারা দুটি নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজির অগ্রাধিকার তালিকার মধ্যে থাকতে পারে।