পাথুম নিসাঙ্কা ও মহিস থিকসানার হাত ধরে বিশ্বকাপের টিকিট পাকা শ্রীলঙ্কার

Pathum Nissanka
Pathum Nissanka. ( Photo Source: Albert Perez-ICC/ICC via Getty Images)

পাথুম নিসাঙ্কা ও মহিস থিকসানার হাত ধরে  জিম্বাবোয়েকে হারিয়ে বিশ্বকাের মূল পর্বে শ্রীলঙ্কা। একবারের বিশ্বকাপ জয়ী হলেও এবার শ্রীলঙ্কাকে নামতে হয়েছিল বিশ্বকাপের যোগ্যতা্ অর্জন পর্বে। সেখানে অবশ্য শুরু থেকেই দুরন্ত ফর্মে ছিল শ্রীলঙ্কা। সেখানেই সুপার সিক্সের পর্বে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে নেমেছিল শ্রীলঙ্কা। একপেশে ম্যাচে জিম্বাবোয়েকে হারিয়ে বিশ্বকাপের মঞ্চে জায়গা করে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। প্রথম যোগ্যতা অর্জনকারী দল হিসাবেই তারাই এবার পৌঁছল বিশ্বকাপের মঞ্চে। বিশ্বকাপে নিজেদের পারফর্ম্যান্সের ধারা তারা অব্যহত রাখতে পারে কিনা সেটাই এখন দেখার।

১৯৯৬ সালে প্রথমবার বিশ্বকাপ জয়ী হয়েছিল শ্রীলঙ্কা। এরপর বেশ কয়েকবার বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছলেও শেষরক্ষা করতে পারেনি শ্রীলঙ্কা।গতবছর এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল শ্রীলঙ্কা। যদিও টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের পারফরম্যান্স দেখাতে পারেনি তার। সেই শ্রীলঙ্কাকেই এবার যোগ্যতা নির্ণয়েরক পর্বে নামতে হয়েছিল। গত রবিবার জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে নেমেছিল শ্রীলঙ্কা। সেখানেই দুর্ধর্ষ পারফরম্যান্স প্রদর্শন করে বিশ্বকাপের মঞ্চে নিজেদের জায়গা পাকা করে ফেলেছে শ্রীলঙ্কা বাহিনী।

২৫ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচের সেরা হয়েছেন মহিস থিকসানা

জিম্বাবোয়োর বিরুদ্ধে শুরু থেকেই দুরন্ত ফর্মে ছিল শ্রীলঙ্কা। টস জিতে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক। শুরু থেকেই ম্যাচে ছিল তাদেরপ দাপট। জিম্বাবোয়ের সিন উইলিয়ামস ছাড়া কেউই বড় রান করতে পারেননি। যদিও সিন উইলিয়ামসের ৫৬ রান জিম্বাবোয়েকে বড় রানের দিকে এগিয়ে দিতে পারেনি। মহিলা থিকসানার দুর্ধর্ষ বোলিংয়ের সামনে কার্যত তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়েছিল জিম্বাবোয়ের ব্যাটিং লাইনআপ। আর সেই সুযোগ তুলতে এতটুকু ভুল করেনি শ্রীলঙ্কা। মাত্র ২৫ রান দিয়ে একাই ৪ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন মহিসা থিকসানা।

১৬৫ রানেই শেষ হয়ে গিয়েছিল  জিম্বাবোয়ে। বিশ্বকাপের ম়্চে পৌছতে শ্রীলঙ্কার সামনে তখন ছিল সহজ লক্ষ্য। সেই দাজটাই একেবারে নিখুঁতভাবে করেছিলেন পাথুম নিসাঙ্কা। জিম্ববোয়ের বোলিং লাইনআপকে তাদের সামনে মাথা তুলে দাঁড়ানোর কোনো সুযোগই দেননি তিনি। বরং একাই কার্যত শেষ করে দিয়েছিলেন জিম্বাবোয়োর বোলিং লাইনআপকে। ১০১ রানে শেষপর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন তিনি। আর তাতেই বিশ্বকাপের টিকিট পাকা করে ফেলে শ্রীলঙ্কা।

১৯৯৬ সালে  প্রথমবার বিশ্বকাপ জিতেছিল শ্রীলঙ্কা। সেই ভারতের মাটিতেই তাদের প্রথম বিশ্বজয় হয়েছিল। ২০১১ সালে এই ভারতের মাটিতেই  শেষবার বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছেছিল শ্রীলঙ্কা। ফের একবার ভারতের মাটিতে বিশ্বকাপের লড়ই। সেখানেই ফের একবার শ্রীলঙ্কা কোনও চমক দেখাতে পারে কিনা সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।