“কোহলি, আইয়ার এবং শামি শিরোনামে থাকবে তবে এই ভারতীয় দলের আসল নায়ক হলেন রোহিত শর্মা” – নাসের হুসেন

Rohit Sharma
Rohit Sharma. (Photo Source: Twitter)

নিউজিল্যান্ডকে ৭০ রানে হারানোর মাধ্যমে ওডিআই বিশ্বকাপ ২০২৩-এর ফাইনালে পৌঁছে গেছে ভারত। প্ৰথমে ব্যাটিং করতে নেমে ৫০ ওভারে ৪ উইকেটে ৩৯৭ রানে পৌঁছতে সক্ষম হয়েছিল ভারত। বিরাট কোহলি এবং শ্রেয়স আইয়ারের ব্যাট থেকে শতরান এসেছিল। নিউজিল্যান্ডের ইনিংস ৩২৭ রানে শেষ হয়ে গিয়েছিল। মহম্মদ শামি ৭টি উইকেট নিয়ে কেন উইলিয়ামসনের নেতৃত্বাধীন দলকে ধরাশায়ী করেছিলেন।

এই জয়ের জন্য অনেকেই বিরাট কোহলি, শ্রেয়স আইয়ার এবং মহম্মদ শামিকে কৃতিত্ব দিয়েছেন। তবে ইংল্যান্ডের প্রাক্তন ক্রিকেটার নাসের হুসেনের মতে, ভারতীয় দলের আসল নায়ক হলেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

নাসের হুসেন স্কাই স্পোর্টসে বলেন, “আগামীকাল শিরোনাম হবে কোহলি, শ্রেয়স আইয়ার এবং মহম্মদ শামিকে নিয়ে কিন্তু এই ভারতীয় দলের আসল নায়ক, আসল মানুষ যিনি এই ভারতীয় দলের সংস্কৃতিকে বদলে দিয়েছেন তিনি হলেন রোহিত শর্মা। আমাদের সাথে ডিকে (দীনেশ কার্তিক) আছে এবং তার পরে, আমরা সবাই টি-২০ সেমিফাইনালের সময় অ্যাডিলেডে ছিলাম যেখানে তারা ভয়ের সাথে খেলেছিল, কম স্কোর পেয়েছিল এবং ইংল্যান্ড তাদের ধরাশায়ী করেছিল এবং দশ উইকেটে জয়ী হয়েছিল।”

তিনি আরও বলেন, “তিনি ডিকে-কে বললেন, আমাদের পরিবর্তন করতে হবে। একটা জিনিস বলার পর সেটা করে দেখানো সহজ কাজ নয়। তাই আমি মনে করি আজকের আসল নায়ক ছিলেন রোহিত এবং প্রথমবার তাদের পরীক্ষা করা হয়েছিল। গ্রুপ পর্বে খেলা অন্যরকমের হয়, নক আউটে খেলা কঠিন হয়ে যায়, তুমি কি এটি আবার করতে পারবে, নির্ভীক ক্রিকেট খেলতে পারবে? অধিনায়ক হিসেবে তিনি সেখানে গিয়েছিলেন এবং সবাইকে দেখিয়েছিলেন এবং তার ড্রেসিংরুমকে দেখিয়েছিলেন যে আমরা ঠিক একইভাবে খেলা চালিয়ে যেতে চলেছি।”

চলতি ওডিআই বিশ্বকাপে ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের প্রদর্শন করেছেন রোহিত শর্মা

ওডিআই বিশ্বকাপ ২০২৩-এ ১০টি ইনিংসের পর রোহিত শর্মার রানসংখ্যা হল ৫৫০। এই টুর্নামেন্টে বর্তমানে তার স্ট্রাইক রেট হল ১২৪.১৫। অন্যদিকে, তার গড় হল ৫৫। তিনি ১টি শতরান এবং ৩টি অর্ধশতরান করতে সক্ষম হয়েছেন। তার সর্বোচ্চ স্কোর হল ১৩১।

১৯শে নভেম্বর, রবিবার, আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ওডিআই বিশ্বকাপ ২০২৩-এর ফাইনালে প্যাট কামিন্সের নেতৃত্বাধীন অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে ভারত। শেষমেশ রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন দল ট্রফি জিততে পারে কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়।