এশিয়া কাপ ২০২৩-এর ফাইনালে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের প্রদর্শন করার পর বোলারদের ওডিআই র‍্যাঙ্কিংয়ে প্ৰথম স্থানে উঠে এলেন মহম্মদ সিরাজ

Mohammed Siraj
Mohammed Siraj. ( Photo Source: FAROOQ NAEEM/AFP via Getty ImagesImage )

এশিয়া কাপ ২০২৩-এর ফাইনালে দাসুন শানাকার নেতৃত্বাধীন শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে অসাধারণ পারফরম্যান্সের প্রদর্শন করেছিলেন মহম্মদ সিরাজ। তিনি ৭ ওভারে মাত্র ২১ রানের বিনিময়ে ৬টি উইকেট নিয়েছিলেন। ফাইনাল ম্যাচটিতে তিনি ম্যাচসেরার পুরস্কারও জিতেছিলেন। ২০শে সেপ্টেম্বর, বুধবার, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) ওডিআই ক্রিকেটের র‍্যাঙ্কিংয়ের তালিকা আপডেট করেছে। এই তালিকায় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন সিরাজ। উল্লেখযোগ্যভাবে, তিনি এর আগে নবম স্থানে ছিলেন।

সদ্য সমাপ্ত এশিয়া কাপের ফাইনালের আগে মহম্মদ সিরাজের পয়েন্ট ছিল ৬৩৭। বর্তমানে তার ঝুলিতে ৬৯৪ পয়েন্ট রয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার অভিজ্ঞ পেসার জশ হ্যাজেলউড তার থেকে ১৬ পয়েন্ট পিছিয়ে রয়েছেন। তিনি প্ৰথম স্থান হারিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেমে গেছেন।

এশিয়া কাপ ২০২৩-এর ফাইনালে রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দল দাসুন শানাকার নেতৃত্বাধীন শ্রীলঙ্কাকে ১০ উইকেটে পরাজিত করেছিল। শ্রীলঙ্কা মাত্র ৫০ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। এর থেকে কম রান আর কোনো ওডিআই টুর্নামেন্টের ফাইনালে হয়নি। এই ম্যাচে মহম্মদ সিরাজ তার দ্বিতীয় ওভারে ৪টি উইকেট শিকার করেছিলেন। তিনি তৃতীয় বোলার হিসেবে এই কাজটি করেছিলেন। এই তালিকায় থাকা প্ৰথম দুইজন বোলার হলেন লাসিথ মালিঙ্গা এবং চামিন্ডা ভাস।

মহম্মদ সিরাজ এর আগেও বোলারদের ওডিআই র‍্যাঙ্কিংয়ে প্ৰথম স্থান অধিকার করেছিলেন। ২০২৩ সালের জানুয়ারি মাসে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের প্রদর্শন করে তিনি এই স্থানটি পেয়েছিলেন।

বোলারদের আইসিসি ওডিআই র‍্যাঙ্কিং

১. মহম্মদ সিরাজ – ৬৯৪ রেটিং পয়েন্ট
২. জশ হ্যাজলউড – ৬৭৮ রেটিং পয়েন্ট
৩. ট্রেন্ট বোল্ট – ৬৭৭ রেটিং পয়েন্ট
৪. মুজিব উর রহমান – ৬৫৭ রেটিং পয়েন্ট
৫. রশিদ খান – ৬৫৫ রেটিং পয়েন্ট

ওডিআই ব্যাটিং র‍্যাঙ্কিংয়ে বাবর আজমের খুব কাছাকাছি রয়েছেন শুভমন গিল

এই মুহূর্তে আইসিসি ওডিআই ব্যাটিং র‍্যাঙ্কিংয়ে প্ৰথম স্থানে রয়েছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম। তার ঠিক পরেই রয়েছেন প্রতিভাবান ভারতীয় ওপেনার শুভমন গিল। এশিয়া কাপে তিনি বেশ ভালো রান পেয়েছিলেন। এই ২৪ বছর বয়সী ব্যাটার ৬টি ম্যাচ খেলে ৩০২ রান করতে সক্ষম হয়েছিলেন। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে একটি দুর্দান্ত শতরান করেছিলেন তিনি।

অন্যদিকে, বিরাট কোহলি এবং রোহিত শর্মা যথাক্রমে অষ্টম এবং দশম স্থানে রয়েছেন। হার্দিক পান্ডিয়া এশিয়া কাপের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২.২ ওভারে ৩ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নিয়েছিলেন। অলরাউন্ডারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে তিনি ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছেন।