বিশ্বকাপের মঞ্চে রোহিত শর্মাকে নিয়ে আশাবাদী সৌরভ গঙ্গোপধ্যায়

Rohit Sharma
Rohit Sharma. (Photo Source: Luke Walker-ICC/ICC via Getty Images)

গত মাসের শেষেই আসন্ন বিশ্বকাপের সূচী ঘোষণা করে দিয়েছে আইসিসি। আগামী ৫ অক্টোবর থেকে শুরু হতে চলেছে এবারের ওডিআই বিশ্বকাপ। এখন থেকেই যে সেই প্রতিযোগিতা ঘিরে উত্তেজনার পারদ চড়তে শুরু করেছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সেখানেই ভারতীয় দলের সাফল্য নিয়েও নানান কথাবার্তা শুরু হয়ে গিয়েছে। অনেকেই রোহিত শর্মা, রাহুল দ্রাবিড়ের ওপর বাড়চি চাপ নিয়েও আলোচনা করছেন। যদিও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের মতে রোহিত শর্মা এহং রাহুল দ্রাবিড়ের সামনে চাপ খুব একটা বড় সমস্যা হবে না।

২০১৩ সালে শেষবার আইসিসির ট্রফি জিতেছিল ভারতীয় দল। তাও সেটা মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে জিতেছিল টিম ইন্ডিয়া। এরপর থেকে ভারতীয় দজলের আইসিসি ট্রফির ভাড়ার শূন্য। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ থেকে একটিও আইসিসি ট্রফি জিততে পারেনি ভারতীয় দল। এবার ঘরের মাঠে বিশ্বকাপের আসরে নামছে ভারতীয় দল। সেখানে ঘরের মাঠে যে তাদের ঘিরে প্রত্যাশা অনেক বেশী থাকবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সেইসঙ্গে রোহিত শর্মাদের  ওপরও যে চাপ বেশী থাকবে তাও বেশ স্পষ্ট। তবে রোহিত শর্মাদের সামনে সেই চাপ বিশেষ কার্যকর হবে না বলেই মনে করছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

গত বিশ্বকাপে পাঁচটি সেঞ্চুরী করেছিলেন রোহিত শর্মা

গতবারের বি্শ্বকাপে পাঁচটি সেঞ্চুরী করেছিলেন রোহিত শর্মা। এবারও যে তাঁর থেকে তেমন একটা প্রত্যাশা থাকবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সেইসঙ্গে থাকবে নানান হিসাব নিকাশও। আর সেটা যে রোহিত শর্মার ওপরক বড় চপ তৈরি করতে পারে তাও বেশ স্পষ্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের কথা থেকে। কিন্তু তাতে রোহিত শর্মার খুব একটা অসুবিধা হবে না বলেই মনে করছেন তিনি। বরং বিশ্বকাপে রোহিত শর্মাকে নিয়ে আশাবাদী সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

এই প্রসঙ্গে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, শেষ একদিনের বিশ্বকাপে পাঁচটি সেঞ্চুরী পেয়েছিলেন রোহিত শর্মা। নিশ্চিতভাব্ে বলতেই পারে য়ে তাঁর একটা বাড়তি চাপ সবসময়ই থাকবে। তবে সেু চাপ কোনবওরকম সমস্যাউ হবে না। আমার মতে তারা ঠিক একটা পথ বের করে নিতে পারবেন। শুধুমাত্র জিতে নাও এটা। তিনি পাঁচটি আইপিএলও জিতেছিলেন। সেটা কিন্তু একেবারেই সহজ কাজ ছিল না। আমা আশাবাদী যে ভারতকেও তিনি বিশ্বকাপ জেতাতে পারবেন।

আগামী ৮ অক্টোবর এবারের বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে নামবে ভারতীয় দল। প্রথম ম্যাচেই তাদের মুখোমুখি হতে চলেছে অস্ট্রেলিয়া।