নেপালের বিরুদ্ধে সেঞ্চুরী ইনিংস খেলে ওডিআই ফর্ম্যাটে নতুন রেকর্ডের মালিক বাবর আজম

Babar Azam
Babar Azam. (Photo by Asif HASSAN / AFP) (Photo by ASIF HASSAN/AFP via Getty Images)

নেপালের বিরুদ্ধে রেকর্ড দিয়েই য়াত্রাটা শুরু করলেন পাকিস্তানের অধিনায়র বাবর আজম। বিশ্ব ক্রিকেটের মঞ্চে ওডিআই ফর্ম্যাটে দ্রুততম ক্রিকেটার হিসাবে কেরিয়ারের ১৯তম  সেঞ্চুরী করলেন তিনি। আর তাতেই নেপালের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের বড় রানের রাস্তাটাএ কার্যত বার আজমই পাকা করে দিলেন। নেপালের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচেই ১০৯ বলে  ওডিআই কেরিয়ারের ১৯তম সেঞ্চুরী ইনিংস খেললেন এই তারকা ক্রিকেটার। আর সেই পারফরম্যান্সের সঙ্গেই ওডিআই ক্রিকেটের মঞ্চে এক নতুন রেকর্ড গড়লেন পাকিস্তানের অধিনায়ক।

এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ঘরের মাঠে নেপালের বিরুদ্ধে নেমেছে পাকিস্তান। সেখানে শুরুটা অবশ্য খুব একটা ভালভাবে করতে পারেনি পাকিস্তান। শুরুর দিকেই দলের ওপেনিং জুটিকে হারিয়ে বেশ চাপে পড়ে গিয়েছিল পাক ক্রিকেট বাহিনী। সেই জায়গা থেকেই পাকিস্তানের হাল ধরেন বাহর আজম ও মহম্মদ রিজওয়ান। সেখান থেকেই ধীরে ধীরে পাকিস্তানকেবড় রানের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজটা শুরু করেছিলেন এই দুইঅ তারকা ক্রিকেটার। যদিও অর্ধশতরানের পার্টনারশিপ গড়ার পরই সাজঘরের রাস্তায় ফিরেছিলেন পাকিস্তানের তারকা ক্রিকেটার মহম্মদ রিজওয়ান।

নেপালের বিরুদ্ধে ১৫১ রানের ইনিংস খেলেছেন বাবর আজম

সেই থেকেই দলের রান এগিয়ে নিয়ে য়াওয়ার দায়িত্বটা কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন বাবর আজম। শুরু থেকেই এদিন দুরন্ত ফর্মে চিলেন তিনি। সময় যত এগিয়েছে বাবর আজমও ততই আক্রমণাত্মক মেজাজে নিজেকে ধরা দিয়েছিলেন। সেইসঙ্গেই নেপাল বোলারদের ওপরই চাপ তৈরি করা শুরু করেছিলেন তিনি। সেইসঙ্গে তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দিয়েছিলেন ইফতিকার আহমেদও। তাদের এই পার্টনারশিপটাই পাকিস্তানের বড় রানের রাস্তাটাও পাকা করে দিয়েছিল। সেইসঙ্গেই কেরিয়ারের অন্যতম বহু কাঙ্খিত সেই রেকর্ডের মালিক হয়ে যান বাবর আজমও।

বিশ্ব ক্রিকেটের মঞ্চে দ্রুততম ক্রিকেটার হিসাবে ১৯তম ওডিআই সেঞ্চুরী করেন তিনি। ১০৯ বল খেলেই সেঞ্চুরী হাঁকান এইঅ তারকা ক্রিকেটার। তাঁর এই পারফরম্যান্সের আপ্লুত সকলে। সেইসঙ্গে ভারতের বিরুদ্ধে নামার আগে যে বাবর আজমের এই পারফরম্যান্স তাঁর আত্মবিস্বাসর অনেকটাই বাড়াবে তাও বলার অপেক্ষা রাখে না। শেষপর্যন্ত ১৫১ রানের ইনিংস খেলেই থামেন বাবর আজম। তিনি যখন সাজঘরে ফেরেন সেই সময় পাকিস্তানের রান ৩৩৮।

এদিন বাবর আজমের গোটা ইনিংস জুড়ে ছিল ১৪টি চার এবং ৪টি ওভার বাউন্ডারি। একইসঙ্গে এদিন সেঞ্চুরী ইনিংস খেলেছেন ইফতিকার আহমেদও। ৭১ বলে ১০৯ রানের ঝোরো ইনিংস খেলেন এই তারকা ক্রিকেটার। নেপালের বিরুদ্ধে ৩৪২ রান করে পাকিস্তান।